মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২১st এপ্রিল ২০১৯

কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর ভুলের জন্য জনাব মোঃ আঃ মতিনের নিকট দুঃখ প্রকাশ ও ক্ষমা প্রার্থনা


প্রকাশন তারিখ : 2019-04-21
“সংযোগ নেই তবু বিদ্যুতের বকেয়া বিলের মামলায় দিনমজুর মোঃ আঃ মতিন কারাগারে”-শিরোনামে গত ১৭/০৪/২০১৯ খ্রিঃ বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদটি পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের চেয়ারম্যানের নজরে আসে। উক্ত ঘটনার সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্তের জন্য তাৎক্ষণিকভাবে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়। ২০১৫ সালে জনাব মোঃ আঃ মতিনের ঘরে বিদ্যুৎ সংযোগ না দিয়ে তাঁর নামে বরাদ্দকৃত মিটারটি প্রতিবেশী জনাব মোঃ  শফিকুল ইসলামের ঘরে স্থাপন করা হয়। তারপর থেকে বিদ্যুৎ জনাব মোঃ শফিকুল ইসলাম ব্যবহার করলেও বিদ্যুৎ বিল জনাব মোঃ আঃ মতিনের নামে প্রদান করা হয়ে আসছিল। যা সমিতির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা/কর্মচারীগণের দায়িত্ব পালনে উদাসীনতা ও চরম অবহেলা। বিদ্যুৎ বিল অপরিশোধিত থাকায় জনাব মোঃ আবদুল মতিনের নামে মামলা করার কারণে এ অনভিপ্রেত ও দুঃখজনক ঘটনার সৃষ্টি হয়। এ প্রেক্ষিতে বিষয়টি অতীব গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করে নি¤œরূপ ব্যবস্থা গ্রহণ করা  হয়েছে ঃ
 
১। কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর জেনারেল ম্যানেজার জনাব মোঃ আঃ মতিনের বাড়ীতে গিয়ে তাঁর নিকট দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন;
২। বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান মহোদয় জনাব মোঃ আঃ মতিনের সাথে টেলিফোনে কথা বলে তাকে সান্তনা দেন এবং দুঃখ প্রকাশ করেন;
৩। জনাব মোঃ আঃ মতিনকে আর্থিকভাবে ক্ষতিপূরণ প্রদান করা হয়েছে;
৪। জনাব মোঃ আঃ মতিন এর বাড়ীতে তাৎক্ষণিকভাবে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান করা হয়েছে;
৫। ইতোমধ্যে এ ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্ট ১১ (এগার) জন কর্মকর্তা/কর্মচারীকে সাময়িক বরখাস্ত করে তদন্তের আওতায় আনা হয়েছে;
৬। ভবিষ্যতে যাতে এ ধরণের ঘটনার পুণরাবৃত্তি না ঘটে সে জন্য বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান ৮০ টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ব্যবস্থাপনাকে নির্দেশনা প্রদান করেছেন।

Share with :

Facebook Facebook